রোজার নিয়ত কখন ও কিভাবে করতে হয়?

রোজার নিয়ত কখন ও কিভাবে করতে হয়?
রোজার নিয়ত কখন ও কিভাবে করতে হয়?

রোজার নিয়ত কখন করতে হয়?

ইসলামে প্রতিটি কাজের শুরুতে নিয়ত করা আবশ্যক। নিয়ত মানে ইচ্ছা করা বা সংকল্প করা। সংকল্পহীন যদি কেউ কয়েক দিনও খাবার না খেয়ে থা্কে, তবে একে রোজা বলা হবে না। রোজা গ্রহণযোগ্য হওয়ার জন্য অন্যতম শর্ত হলো নিয়ত করা। তবে এ নিয়ত কখন করতে হবে— সে বিষয়টি বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া জরুরি।

রোজার নিয়ত কিভাবে করতে হয়?

রমজানের রোজার নিয়ত রাত থেকেই করা যায়। বিশেষত ভোররাতে যখন আমরা সাহ্‌রি খাই, তখনই কিন্তু রোজার নিয়ত হয়ে যায়। তখন মনে মনে রোজা রাখার সংকল্প থাকলেই নিয়ত সম্পন্ন হয়ে যাবে। মুখে উচ্চারণের দরকার নেই। নিয়ত আরবিতে করাও জরুরি নয়।

কোনো কারণে যদি রাতে রোজার নিয়ত না করা হয় বা দ্বিধা থাকে, তবে দিনের অর্ধেক সময় অতিবাহিত হওয়ার আগ পর্যন্ত নিয়ত করার সুযোগ রয়েছে । এরপর কিন্তু আর নিয়ত করার সুযোগ নেই। একইভাবে কেউ যদি সুনির্দিষ্ট কোনো তারিখে রোজার মানত করে, তবে সেই নির্দিষ্ট দিনে অর্ধদিবস পর্যন্ত নিয়ত করার সুযোগ আছে।

অনির্দিষ্ট মানতের রোজা, কাফফারার রোজা, কাজা রোজা—এসবের জন্য কিন্তু রাত থেকেই নিয়ত করা আবশ্যক। এ ক্ষেত্রে দিনে নিয়ত করার কোনো সুযোগ নেই।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে, রমজানের ফরজ রোজার নিয়ত মুখে উচ্চারণ করা জরুরি নয়, শুধুমাত্র মনে মনে ইচ্ছা বা সংকল্প করাই যথেষ্ট। তবে এই ইচ্ছা বা সংকল্প সুবহে সাদিকের পূর্বে করাই উত্তম। তবে কেউ যদি সুবহে সাদিকের পূর্বে ইচ্ছা বা সংকল্প করতে না পারে, তাহলে দুপুরের পূর্বে নিয়ত করলেও রোজা হয়ে যাবে।

মনে রাখবেন নিয়ত মানে কিন্তু মুখে উচ্চারণ করা নয়, বরং অন্তরের ইচ্ছাটাই হলো নিয়ত। মহান আল্লাহ তায়ালা সবাইকে সঠিক বুঝার তৌফিক দান করুক, আমিন।

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
মন্তব্য করুন
comment url