জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান কততম ২০২৪

বর্তমান বিশ্বে, জনসংখ্যা একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, পরিবেশগত ভারসাম্য, এবং সামাজিক স্থিতিশীলতার উপর জনসংখ্যার প্রভাব অনস্বীকার্য।

এই প্রেক্ষাপটে, বাংলাদেশের জনসংখ্যার বিশ্বে অবস্থান, তাৎপর্য এবং ভবিষ্যৎ প্রেক্ষাপট বিশ্লেষণ করা অত্যন্ত জরুরি।

জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান
জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান

জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান কততম?

জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান অষ্টম।

বিশ্বে অবস্থান: ২০২৩ সালের হিসাব অনুযায়ী, বাংলাদেশের জনসংখ্যা প্রায় ১৭ কোটি, যা বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ২.২%। এই বিশাল জনসংখ্যার কারণে, বাংলাদেশ বিশ্বের অষ্টম জনবহুল দেশ।

বাংলাদেশে জনসংখ্যার ঘনত্ব

বাংলাদেশের জনসংখ্যা ঘনত্বও বিশ্বের অন্যতম বেশি। প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১,২৬৫ জন** বসবাসকারী দেশটি **বিশ্বের সপ্তম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ।

বাংলাদেশে জনসংখ্যার তাৎপর্য

অর্থনীতি

বিশাল জনসংখ্যা বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য একটি সুযোগ এবং চ্যালেঞ্জ উভয়ই। একদিকে, এটি একটি বৃহৎ শ্রমশক্তি সরবরাহ করে যা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

অন্যদিকে, বিশাল জনসংখ্যার জন্য খাদ্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, এবং কর্মসংস্থান সরবরাহ করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ।

পরিবেশ

বিশাল জনসংখ্যা পরিবেশের উপর চাপ সৃষ্টি করে। বন উজাড়, জল দূষণ, এবং বায়ু দূষণের মতো সমস্যাগুলি বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

সামাজিক

বিশাল জনসংখ্যা সামাজিক সমস্যাগুলিও সৃষ্টি করে। দারিদ্র্য, অসমতা, এবং অপরাধের মতো সমস্যাগুলি বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

ভবিষ্যৎ প্রেক্ষাপট

জাতিসংঘের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০৫০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৯ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। বাংলাদেশের সরকার জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য বিভিন্ন নীতি বাস্তবায়ন করছে।

শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিনিয়োগ বাংলাদেশের জনসংখ্যার চ্যালেঞ্জগুলিকে মোকাবেলা করতে সাহায্য করবে।

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
মন্তব্য করুন
comment url