মহাকাশ কি? মহাকাশ কাকে বলে?

আসসালামু আলাইকুম, আমরা আজকে এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে জানতে পারবো মহাকাশ কি? মহাকাশ কাকে বলে?

তো যারা মহাকাশ সম্পর্কে জানতে চান, তারা অবশ্যই সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়বেন।

মহাকাশ কি? মহাকাশ কাকে বলে?
মহাকাশ কি? মহাকাশ কাকে বলে?

মহাকাশ কি?

মহাকাশ কোনো পদার্থ দিয়ে তৈরি নয়। মহাকাশ বলতে পদার্থের অনুপস্থিতি বোঝায়। এটাই হলো সে ফাকা জায়গা বা অঞ্চল যেখান দিয়ে পৃথিবি, চাঁদ, সূর্য ও তারা চলাচল করে।

মহাকাশ কাকে বলে?

গ্রহ নক্ষত্র,ছায়াপথ, গ্যালাক্সি ইত্যাদির মাঝখানে যে খালি জায়গা আছে তাকে মহাকাশ বা মহাশূণ্য বলা হয়।

আমরা মহাকাশের দিকে তাকালে অনেক কিছুই দেখতে পাই যেমন সূর্য, চাঁদ, নক্ষত্র, গ্রহ, উপগ্রহ আর এগুলো হলো পদার্থ। আমাদের পৃথিবীও একটি পদার্থ।

মহাকাশ বা মহাশূনের শুরু কোথা থেকে?

পৃথিবীর মতো বায়ুমন্ডল ও মহাকাশের চার দিকে ঘুরছে তাই তাকে মহাকাশের অংশ হিসেবে ধরা হয় না। কিন্তু তাকে পৃথিবীর অংশ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

তাহলে কোথা থেকে  বায়ুমন্ডলের শেষ এবং মহাকাশের শুরু?

প্রায় অধিকাংশ বায়ুমন্ডল পৃথিবীর খুব কাছাকাছি। পৃথিবীর পৃষ্ঠ থেকে দূরত্ব বাড়তে থাকলে বায়ুমন্ডল হালকা হতে থাকে। ১৬০ কিলোমিটার দূরত্বের পর বায়ুমন্ডল থাকে না বললেই চলে।

কিন্তু অধিকাংশ বিজ্ঞানী মনে করে ১৬০ কিলোমিটার  উচ্চতার পর থেকে বায়ুমন্ডল শেষ এবং মহাকাশ শুরু হয়েছে।

মহাকাশ কত দূর পর্যন্ত বিস্তৃত? মহাকাশের কি কোনো সীমা আছে?

মহাকাশের কোনো শেষ নেই। আমরা যদি দূরবিক্ষণ যন্ত্র দিয়ে মহাকাশের দিকে তাকাই তাহলে অনেক গ্রহ, নক্ষত্র, ধুমকেতু ও গ্যালাক্সি দেখতে পাই কিন্তু মহাকাশের কোনো শেষ দেখতে পাই না।

কিন্তু এক সময় মানুষ ভাবতো মহাকাশের শেষ আছে, তারা যতো দূর পর্যন্ত দেখতে পেতো তাকে মহাকাশের শেষ বলে ধরে নিতো। কিন্তু এখন প্রমান হয়েছে মহাকাশের শেষ নেই।

শেষ কথাঃ আশা করি এই আর্টিকেলটি পড়ার পর মহাকাশ কি? মহাকাশ কাকে বলে? জানতে পেরেছেন। আর্টিকেল সম্পর্কে কোনো মতামত থাকলে কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ।

পরবর্তী পোস্ট পূর্ববর্তী পোস্ট
কোন মন্তব্য নেই
মন্তব্য করুন
comment url