প্রযুক্তি

৫টি দুর্দান্ত ও ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া

ইউটিউবে আপনার মুখ দেখাতে চান না? কোনো সমস্যা নেই। এই আর্টিকেলে তুলে ধরা ৫টি ফেসলেস ও ইউনিক ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া আপনাকে একটি স্ট্রং অডিয়েন্স তৈরি করতে বেশ সহযোগিতা করবে।

কিন্তু অনেকের প্রশ্ন থাকে, আসলেই কি ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল খুলে কি টাকা ইনকাম করা যায়? উত্তরটি হলো হ্যাঁ।

আপনি শতভাগ নিশ্চিত থাকতে পারেন। ইউটিউবে আপনি আপনার মুখ না দেখিয়েই টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তবে মুখ না দেখিয়ে ইউটিউবে ভিডিও বানালে অনেক সময় ব্যয় হয়। মুখ না দেখানো চ্যানেলের ভিডিও বানাতে আপনার ভিজুয়াল উপাদানের প্রয়োজন হবে, যেমন স্টক ভিডিও, ছবি, গ্রাফিক্স এবং টেক্সট।

তাই অন্যান্য নির্মাতাদের তুলনায় ভিডিও এডিটিং করতে বেশি সময় লাগবে। তবে এই অসুবিধার পাশাপাশি মুখ না দেখিয়ে ভিডিও বানালে বেশ কিছু সুবিধা আপনি পাবেন যেমনঃ

  • সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার গোপনীয়তা রক্ষা করা
  • আপনার একটি চ্যানেল আছে জেনে আপনার নিয়োগকর্তাকে রাখা
  • অবাঞ্ছিত মতামত ও গালাগালি থেকে নিজেকে রক্ষা করা
  • ইউটিউবে আরামদায়ক অভিজ্ঞতা নেয়া

তাহলে বুঝতেই পারছেন, এখানে অসুবিধার চাইতে সুবিধা বেশী। ঠিক এই কারণগুলোর জন্য বেশীরভাগ মানুষ ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল খুলতে চায়।

৫টি দুর্দান্ত ও ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া
 ৫টি দুর্দান্ত ও ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া

৫টি দুর্দান্ত ও ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া

আপনিও চান? চলুন তাহলে ৫টি ফেসলেস ও ইউনিক চ্যানেল আইডিয়া জেনে নেই।

১। ট্রাভেল গাইড ভিডিও

ট্রাভেল গাইড ভিডিও বানাতে আপনাকে ইউরোপ, এশিয়া, আফ্রিকা বা অন্য কোন জায়গায় আপনাকে যেতে হবেনা। ফেসলেস ট্রাভেল গাইড ভিডিওতে আপনি বিভিন্ন স্থানের স্টক ফুটেজ ব্যবহার করেই ভিডিও বানাতে পারবেন।

এমনকি ট্রাভেল গাইড ভিডিও বানাতে অনেক চ্যানেল শুধুমাত্র ছবিও ব্যবহার করে। 

২। বইয়ের সারাংশ

আপনি কি বই পড়তে ভালোবাসেন? তাহলে যেকোন বইয়ের সারাংশ দিয়েই ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। এখন আপনার মুখবিহীন চ্যানেল শুরু করার এবং “বইয়ের সারাংশ” কে একমাত্র ফোকাস করার সময়! অনেক লোকের কাছে একটি সম্পূর্ণ বই পড়ার সময় নেই, তাই আপনি মূল টেকঅ্যাওয়েগুলিকে সংক্ষিপ্ত করে তাদের সাহায্য করবেন।

এই কাজটি আপনার জন্য সবচেয়ে সহজ হবে। তবে ভিডিও এডিটিং করার সময় বইয়ের সারাংশের পাশাপাশি বেশ কিছু স্টক ভিডিও ফুটেজ ও টেক্সট যুক্ত করলে আপনার ভিডিওটি দারুণ লাগবে।

৩। এক্সপেরিমেন্ট ভিডিও

একটি এক্সপেরিমেন্ট ভিডিও বানাতে আপনাকে মোটেও মুখ দেখাতে হবেনা। ইউটিউবে অনেক ধরনের এক্সপেরিমেন্ট ভিডিও আছে, আপনি সেগুলো দেখে ধারণা নিয়ে ভিডিও বানাতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই ভিডিও ধারণের জন্যে একটি ক্যামেরা বা মোবাইলের প্রয়োজন হবে। 

৪। টেক রিভিউ

ইউটিউবে টেক রিভিউ খুব জনপ্রিয় একটি টপিক। কিন্তু এই টপিকের উপর অনেক চ্যানেল ইউটিউবে রয়েছে। তাই আপনাকে ইউনিক কিছু পদক্ষেপ নিয়ে ভিডিও বানাতে হবে।

আপনি যদি ভালো ভিউ পেতে চান, তাহলে লেটেস্ট টেক গ্যাজেট ও ডিভাইসগুলো নিয়ে রিভিউ করুন।

৫। সেরা র‍্যাংকিং ভিডিও

আপনার যদি গবেষনা করতে ভালো লাগে, তাহলে আপনি সেরা র‍্যাংকিং ভিডিও বানিয়ে ভালো ভিউ পেতে পারেন। যেমনঃ সেরা ১০টি মুভি, সেরা ৫টি দর্শনীয় স্থান, সেরা ১০টি জনপ্রিয় গান ইত্যাদি।

সেরা র‍্যাংকিং ভিডিও বানাতে গেলেও আপনাকে ভিজুয়াল উপাদান যেমনঃ স্টক ফুটেজ ও ছবি এগুলো ব্যবহার করতে হবে। তাহলে আপনার ভিডিও বেশ আকর্ষনীয় হবে।

শেষ কথাঃ তো এই ছিলো ৫টি দুর্দান্ত ও ফেসলেস ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া, এই আইডিয়াগুলো থেকে আপনার পছন্দের যেকোন আইডিয়াটি বেছে নিন, আর কাজে লেগে যান।

আপনি যদি নিজের উপর ভরসা করতে পারেন, তাহলে আপনি সফল হবেন। ভয়ের কোন কারণ নেই। আজ এ পর্যন্তই, এতক্ষন সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

সহজ ভাষায়

ইসলাম ও বিশ্বতথ্য জানুন সহজ, সাবলীল বাংলায়!

সম্পর্কিত আর্টিকেল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button

অ্যাডব্লকার ডিটেক্ট হয়েছে!

মনে হচ্ছে আপনি অ্যাড ব্লকার ব্যবহার করছেন। আমাদের সাইট ভিজিট করার জন্য আপনাকে অ্যাড ব্লকার বন্ধ করতে হবে। যদি অ্যাডব্লকার ব্যবহার না করেন, তাহলে পেজটি রিফ্রেশ করুন।